সাধারণ জ্ঞান

বঙ্গবন্ধু সেতু সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান তথ্য

বঙ্গবন্ধু সেতু: বঙ্গবন্ধু সেতু এখানে পরিচালিত হয়েছে এবং এটি পরিচালনার ক্ষেত্রে প্রয়াত হওয়ার রিপোর্ট করা হয়নি। সেতুটি মডার্ন ডিজাইন এবং শক্তিশালী নির্মাণের জন্য নির্মিত হয়েছে

Table of Contents

বঙ্গবন্ধু সেতু সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান তথ্য

বঙ্গবন্ধু সেতু সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান

১. বঙ্গবন্ধু সেতু কোথায় অবস্থিত?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতু বাংলাদেশের একটি মহাসূচনায় অবস্থিত। এটি ব্রাহ্মপুত্র নদীর উপর স্থাপিত হয়েছে যা বাংলাদেশের ঢাকা শহর এবং তামাবিল সংযোগ করে।

২. বঙ্গবন্ধু সেতুর দৈর্ঘ্য কত?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর মোট দৈর্ঘ্য প্রায় ৬.১ কিলোমিটার (বা ৩.৮ মাইল)।

৩. বঙ্গবন্ধু সেতুর নামকরণ কেন এমন হয়েছে?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর নামকরণ কারণে এই সেতুটির নাম হিসেবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মরণে রাখা হয়েছে। তিনি বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বিখ্যাত এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার প্রথম পুরুষসভাপতি হিসেবে গণ্য করা হয়েছে।

৪. বঙ্গবন্ধু সেতু কখন উদ্বোধিত হয়েছে?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতু ২০২১ সালের ১০ জুলাই উদ্বোধিত হয়েছে।

৫. বঙ্গবন্ধু সেতুর নির্মাণ কর্মকাণ্ড কত সময় ধরে চলেছে?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর নির্মাণ কর্মকাণ্ড আগস্ট ২০০৯ সালে শুরু হয়েছে এবং ২০২১ সালে শেষ হয়েছে। মোটদিন ১১ বছরের মধ্যে এই সেতু নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

৬. বঙ্গবন্ধু সেতুর নির্মাণের জন্য কোন দেশের সহায়তা গ্রহণ করা হয়েছে?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর নির্মাণের জন্য চীন থেকে সহায়তা গ্রহণ করা হয়েছে। চীন সরকার সেতুটির নির্মাণে তদারকি এবং আর্থিক সহায়তা প্রদান করেছেন।

৭. বঙ্গবন্ধু সেতুর নির্মাণের উদ্দেশ্য কি?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর প্রধান উদ্দেশ্য হলো ঢাকা শহরের সাথে পশ্চিম বঙ্গের মানুষের যোগাযোগ সহজ করা।

৮. বঙ্গবন্ধু সেতু কতটি লেন্থে নির্মিত?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতু একটি দ্বিতীয় মহাসূচনা সেতু হিসাবে নির্মিত হয়েছে। সেটি মোটদিন ৪ লেন্থে নির্মিত, অর্থাৎ চারটি লেন্থের সেগমেন্ট দিয়ে গঠিত হয়েছে। প্রতিটি লেন্থের দৈর্ঘ্য প্রায় ১.৫ কিলোমিটার (অথবা ০.৯ মাইল)।

৯. বঙ্গবন্ধু সেতুর নিম্নস্থলে কোটার উচ্চতা কত?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর নিম্নস্থলে কোটা একটি নদীর উপর অবস্থিত হয়েছে এবং এর উচ্চতা প্রায় ২২ মিটার (অথবা ৭২ ফুট)।

সেতু সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান তথ্য

১০. বঙ্গবন্ধু সেতু নির্মাণের জন্য ব্যবহৃত মোট খরচ কত?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতু নির্মাণে মোট খরচ প্রায় ৫,০০০ কোটি টাকা (পাঁচ হাজার কোটি টাকা)।

১১. বঙ্গবন্ধু সেতু কে ডিজাইন এবং নির্মাণ করেছেন?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুটির ডিজাইন এবং নির্মাণ কাজগুলি চীনের একটি কোম্পানি, China Major Bridge Engineering Company (CMBEC) কর্তৃক সম্পাদিত হয়েছে।

১২. বঙ্গবন্ধু সেতুর সর্বোচ্চ গতি কত?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর সর্বোচ্চ গতি প্রায় ৮০ কিলোমিটার/ঘন্টা (অথবা ৫০ মাইল/ঘন্টা)।

১৩. বঙ্গবন্ধু সেতুর গড় চওড়ান্ত কত?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর গড় চওড়ান্ত প্রায় ১৮ মিটার (অথবা ৫৯ ফুট)।

১৪. বঙ্গবন্ধু সেতু কতবার প্রয়াত হয়েছে?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতু এখানে পরিচালিত হয়েছে এবং এটি পরিচালনার ক্ষেত্রে প্রয়াত হওয়ার রিপোর্ট করা হয়নি। সেতুটি মডার্ন ডিজাইন এবং শক্তিশালী নির্মাণের জন্য নির্মিত হয়েছে।

১৫. বঙ্গবন্ধু সেতুর কোন বিশেষত্ব আছে?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর কয়েকটি বিশেষত্ব রয়েছে। এই সেতু বিশ্বের একটি অভিনব স্ট্রাকচার হিসাবে গণ্য হয়েছে এবং বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সড়ক সেতু। এছাড়াও এটি দক্ষিণ এশিয়ার সর্বোচ্চ চলন্ত সড়ক সেতু হিসাবেও পরিচিত।

১৬. বঙ্গবন্ধু সেতুর নির্মাণে কতটি পিলার ব্যবহৃত হয়েছে?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর নির্মাণে মোট ২১টি পিলার ব্যবহৃত হয়েছে। এই পিলারগুলি সেতুর প্রতিটি লেন্থে স্থাপিত হয়েছে এবং এর উচ্চতা প্রায় ২০০ ফুট (অথবা ৬০ মিটার)।

১৭. বঙ্গবন্ধু সেতুর উদ্দেশ্য কী?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর প্রধান উদ্দেশ্য হলো ঢাকা শহরকে পশ্চিমবঙ্গ এবং অন্যান্য পূর্ব ভারতীয় রাজ্যগুলির সাথে সংযুক্ত করা। এটি দ্বারা পূর্ব ও পশ্চিম বাংলাদেশের সম্পাদিত বাণিজ্যিক, সাংস্কৃতিক এবং রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠানগুলির মধ্যে সম্পাদন হয়ে যাবে।

১৮. বঙ্গবন্ধু সেতু কখন উদ্বোধিত হয়েছে?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়েছে ২৭ জুন, ২০২১ সালে। এই দিনে সেতুটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং অন্যান্য উচ্চ মর্যাদার কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে সম্প্রতি সেতুর উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

১৯.বঙ্গবন্ধু সেতু বাংলাদেশের কোন জেলায় অবস্থিত?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতু বাংলাদেশের মুন্সিগঞ্জ জেলায় অবস্থিত। এটি পদ্মা নদীর উপরে স্থাপিত হয়েছে এবং ঢাকা শহর এবং মুন্সিগঞ্জ জেলা মধ্যে সংযুক্ত করে।

২০.বঙ্গবন্ধু সেতু বাংলাদেশের কতটি সড়ক সংযোগ করে?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতু বাংলাদেশের মুন্সিগঞ্জ জেলা ও ঢাকা শহরকে সংযুক্ত করে। এটি সেতুটির মাধ্যমে ঢাকা শহর সহজে পশ্চিমবঙ্গের সাথে যোগাযোগ করতে পারবে।
বঙ্গবন্ধু সেতু সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান তথ্য
বঙ্গবন্ধু সেতু সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান তথ্য

বঙ্গবন্ধু রেল সেতু সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান

বঙ্গবন্ধু রেল সেতু একটি প্রকল্প যা ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে রেলপথ যোগাযোগ স্থাপনের জন্য শুরু করা হয়। এই সেতু বাংলাদেশের দক্ষিণ করিমগঞ্জ জেলা ও ভারতের ত্রিপুরা জেলা মধ্যে তৈরি হবে।

বঙ্গবন্ধু রেল সেতু প্রকল্পটি সুপ্রভাত বাংলাদেশ এবং প্রথম মন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মধ্যে স্বাক্ষরিত হয়। এই প্রকল্পটির মাধ্যমে ভারত এবং বাংলাদেশ দুটি দেশের মধ্যে নতুন রেল সংযোগ স্থাপন হবে।

এই প্রকল্পের সাথে কিছু জনপ্রিয় জ্ঞান প্রশ্ন এবং তাদের উত্তর দেয়া হলো:

১. বঙ্গবন্ধু রেল সেতু কোন দুটি দেশের মধ্যে স্থাপিত হবে?H 

  •  বঙ্গবন্ধু রেল সেতু বাংলাদেশের দক্ষিণ করিমগঞ্জ জেলা ও ভারতের ত্রিপুরা জেলা মধ্যে স্থাপিত হবে।

২. বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর নির্মাণ প্রকল্পটি কখন শুরু হয়েছিল?

  •  বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর নির্মাণ প্রকল্পটি 2019 সালে শুরু হয়েছিল।

৩. বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর সর্বোচ্চ ব্যবহারিক বেগ কত হবে?

  •  বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর সর্বোচ্চ ব্যবহারিক বেগ প্রায় 120 কিলোমিটার/ঘন্টা হবে।

৪. বঙ্গবন্ধু রেল সেতু কত দৈর্ঘ্যের হবে?

  •  বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর দৈর্ঘ্য প্রায় 4.94 কিলোমিটার হবে।

৫. বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর নক্শা ও নির্মাণ কাজ কোন দেশের কোম্পানি দ্বারা করা হচ্ছে?

  •  বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর নক্শা ও নির্মাণ কাজ ভারতীয় কোম্পানি IRCON International Limited দ্বারা করা হচ্ছে।

৬. বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর নামকরণ কেন করা হয়েছিল?

  • বঙ্গবন্ধু রেল সেতুকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতিতে নামকরণ করা হয়েছে। শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী এবং দেশের স্বাধীনতার পিতা হিসেবে পরিচিত।

৭. বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর নির্মাণ প্রকল্পটির মূল উদ্দেশ্য কী?

  • বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর মূল উদ্দেশ্য হলো বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে রেল পরিবহনের সম্পর্ক স্থাপন করা। এই সেতুর মাধ্যমে মানুষ এবং পারিবারিক যাত্রার জন্য সহজ এবং দ্রুত রেল সংযোগ উপলব্ধ হবে।

৮. বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর নির্মাণ প্রকল্পের মাধ্যমে কোন নগরীর সাথে চার নগরীর সংযোগ স্থাপন করা হবে?

  • বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর মাধ্যমে চট্টগ্রাম শহর সহ কক্সবাজার, ময়মনসিংহ, সিলেট এবং ফেনী নগরীগুলির সংযোগ স্থাপন হবে।

৯. বঙ্গবন্ধু রেল সেতু নির্মাণ প্রকল্পের মূল আর্থিক আপাততার প্রায় কত হবে?

  • বঙ্গবন্ধু রেল সেতু নির্মাণ প্রকল্পের মূল আর্থিক আপাততা প্রায় 3,000 কোটি টাকা হবে।

বঙ্গবন্ধু রেল সেতু

১০. বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর নির্মাণ প্রকল্পের কারিগরি সমঝোতা সংলগ্ন কোন সংস্থার সহযোগিতা রয়েছে?

  • বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর নির্মাণ প্রকল্পের কারিগরি সমঝোতা সংলগ্ন হয়েছে Bangladesh Bridge Authority (BBA), Indian Railways এবং IRCON International Limited।

১১. বঙ্গবন্ধু রেল সেতু কোন নদী উপরে নির্মাণ করা হবে?

  • বঙ্গবন্ধু রেল সেতু তিতাস নদীর উপরে নির্মাণ করা হবে। এই নদী বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে প্রবাহিত হয়।

১২. বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর নির্মাণ কাজ কতদিনে পূর্ণ হতে পারে?

  • বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর নির্মাণ কাজ প্রায় 4 বছরের মধ্যে পূর্ণ হতে পারে। সেই পর্যায়ে একটি উপরক্ত মস্তিষ্কের নির্মাণের জন্য আরও সময় লাগতে পারে।

১৩. বঙ্গবন্ধু রেল সেতু কীভাবে পরিচালিত হবে?

  • বঙ্গবন্ধু রেল সেতু একটি দুইটি ট্রেন প্রবাহের জন্য নির্দিষ্ট হবে। একটি ট্রেন সদরমসদর পরিবহনের জন্য এবং অন্যটি বাণিজ্যিক পরিবহনের জন্য। 

১৪. বঙ্গবন্ধু রেল সেতু নির্মাণে ব্যবহৃত উল্লেখযোগ্য কী ধরণের স্ট্রাকচার ব্যবহৃত হবে?

  • বঙ্গবন্ধু রেল সেতু নির্মাণে ইন্ডিয়ান রেলওয়েজ নির্মাণ কোর্পোরেশন (IRCON) দ্বারা তৈরি একটি ইতালিয়ান প্রযুক্তির স্ট্রাকচার ব্যবহার হবে। এটি প্রয়োজনীয় স্ট্রাকচার সহ মোট ১৪ টি স্প্যান বিশিষ্ট হবে।

১৫. বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর নির্মাণের জন্য কোন টেকনোলজি ব্যবহার হবে?

  • বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর নির্মাণের জন্য ইন্ডিয়ান রেলওয়েজ নির্মাণ কোর্পোরেশন (IRCON) সেইমেন্ট কনক্রিট প্রিসট্রেসড (PSC) ঘন্টা ব্যবহার করবে। এই প্রয়োজনীয় সংরক্ষণ কারণে, সেতুর নির্মাণ কাজ দ্রুত হবে।

১৬. বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর নির্মাণ প্রকল্পের উদ্দেশ্য কি?

  • বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর নির্মাণ প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্য হলো বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সম্পূর্ণ রেল সংযোগ স্থাপন করা। এই সেতুর মাধ্যমে দুটি দেশের মধ্যে ব্যক্তিগত, বাণিজ্যিক, ও পরিবহন সংযোগ উন্নতি হবে।

১৭. বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর মহাসম্পর্ক মাধ্যমে কোন অভিযান সম্পাদিত হয়েছে?

  • বঙ্গবন্ধু রেল সেতু নির্মাণের সময় মহাসম্পর্ক কার্যক্রম হিসেবে “মুক্তির পথে বঙ্গবন্ধু সেতু” নামক একটি অভিযান সম্পাদিত হয়েছে। এই অভিযানে বিভিন্ন প্রশাসনিক, সামাজিক, এবং সাংস্কৃতিক কর্মসূচি সংগঠিত হয়েছে। 

১৮. বঙ্গবন্ধু রেল সেতু কত লেন্থে নির্মাণ হবে?

  • বঙ্গবন্ধু রেল সেতু মোট লেন্থে নির্মাণ হবে, যা প্রায় ৬.১৫ কিলোমিটার বা ৬,১৫০ মিটার।

১৯. বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর মধ্যে কতগুলি স্প্যান থাকবে?

  • বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর মধ্যে মোট ১৪টি স্প্যান থাকবে।

২০. বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর উচ্চতা কত হবে?

  • বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর উচ্চতা প্রায় ২০ মিটার বা ৬৫ ফুট হবে।

বঙ্গবন্ধু সেতু সম্পর্কে তথ্য

১. বঙ্গবন্ধু সেতু কোথায় অবস্থিত?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতু বাংলাদেশের একটি মহাসূচনায় অবস্থিত। এটি ব্রাহ্মপুত্র নদীর উপর স্থাপিত হয়েছে যা বাংলাদেশের ঢাকা শহর এবং তামাবিল সংযোগ করে।

২. বঙ্গবন্ধু সেতুর দৈর্ঘ্য কত?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর মোট দৈর্ঘ্য প্রায় ৬.১ কিলোমিটার (বা ৩.৮ মাইল)।

৩. বঙ্গবন্ধু সেতুর নামকরণ কেন এমন হয়েছে?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর নামকরণ কারণে এই সেতুটির নাম হিসেবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মরণে রাখা হয়েছে। তিনি বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বিখ্যাত এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার প্রথম পুরুষসভাপতি হিসেবে গণ্য করা হয়েছে।

৪. বঙ্গবন্ধু সেতু কখন উদ্বোধিত হয়েছে?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতু ২০২১ সালের ১০ জুলাই উদ্বোধিত হয়েছে।

৫. বঙ্গবন্ধু সেতুর নির্মাণ কর্মকাণ্ড কত সময় ধরে চলেছে?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর নির্মাণ কর্মকাণ্ড আগস্ট ২০০৯ সালে শুরু হয়েছে এবং ২০২১ সালে শেষ হয়েছে। মোটদিন ১১ বছরের মধ্যে এই সেতু নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

৬. বঙ্গবন্ধু সেতুর নির্মাণের জন্য কোন দেশের সহায়তা গ্রহণ করা হয়েছে?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর নির্মাণের জন্য চীন থেকে সহায়তা গ্রহণ করা হয়েছে। চীন সরকার সেতুটির নির্মাণে তদারকি এবং আর্থিক সহায়তা প্রদান করেছেন।

৭. বঙ্গবন্ধু সেতুর নির্মাণের উদ্দেশ্য কি?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর প্রধান উদ্দেশ্য হলো ঢাকা শহরের সাথে পশ্চিম বঙ্গের মানুষের যোগাযোগ সহজ করা।

৮. বঙ্গবন্ধু সেতু কতটি লেন্থে নির্মিত?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতু একটি দ্বিতীয় মহাসূচনা সেতু হিসাবে নির্মিত হয়েছে। সেটি মোটদিন ৪ লেন্থে নির্মিত, অর্থাৎ চারটি লেন্থের সেগমেন্ট দিয়ে গঠিত হয়েছে। প্রতিটি লেন্থের দৈর্ঘ্য প্রায় ১.৫ কিলোমিটার (অথবা ০.৯ মাইল)।

৯. বঙ্গবন্ধু সেতুর নিম্নস্থলে কোটার উচ্চতা কত?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর নিম্নস্থলে কোটা একটি নদীর উপর অবস্থিত হয়েছে এবং এর উচ্চতা প্রায় ২২ মিটার (অথবা ৭২ ফুট)।

সেতু সম্পর্কে তথ্য

১০. বঙ্গবন্ধু সেতু নির্মাণের জন্য ব্যবহৃত মোট খরচ কত?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতু নির্মাণে মোট খরচ প্রায় ৫,০০০ কোটি টাকা (পাঁচ হাজার কোটি টাকা)।

১১. বঙ্গবন্ধু সেতু কে ডিজাইন এবং নির্মাণ করেছেন?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুটির ডিজাইন এবং নির্মাণ কাজগুলি চীনের একটি কোম্পানি, China Major Bridge Engineering Company (CMBEC) কর্তৃক সম্পাদিত হয়েছে।

১২. বঙ্গবন্ধু সেতুর সর্বোচ্চ গতি কত?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর সর্বোচ্চ গতি প্রায় ৮০ কিলোমিটার/ঘন্টা (অথবা ৫০ মাইল/ঘন্টা)।

১৩. বঙ্গবন্ধু সেতুর গড় চওড়ান্ত কত?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর গড় চওড়ান্ত প্রায় ১৮ মিটার (অথবা ৫৯ ফুট)।

১৪. বঙ্গবন্ধু সেতু কতবার প্রয়াত হয়েছে?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতু এখানে পরিচালিত হয়েছে এবং এটি পরিচালনার ক্ষেত্রে প্রয়াত হওয়ার রিপোর্ট করা হয়নি। সেতুটি মডার্ন ডিজাইন এবং শক্তিশালী নির্মাণের জন্য নির্মিত হয়েছে।

১৫. বঙ্গবন্ধু সেতুর কোন বিশেষত্ব আছে?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর কয়েকটি বিশেষত্ব রয়েছে। এই সেতু বিশ্বের একটি অভিনব স্ট্রাকচার হিসাবে গণ্য হয়েছে এবং বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সড়ক সেতু। এছাড়াও এটি দক্ষিণ এশিয়ার সর্বোচ্চ চলন্ত সড়ক সেতু হিসাবেও পরিচিত।

১৬. বঙ্গবন্ধু সেতুর নির্মাণে কতটি পিলার ব্যবহৃত হয়েছে?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর নির্মাণে মোট ২১টি পিলার ব্যবহৃত হয়েছে। এই পিলারগুলি সেতুর প্রতিটি লেন্থে স্থাপিত হয়েছে এবং এর উচ্চতা প্রায় ২০০ ফুট (অথবা ৬০ মিটার)।

১৭. বঙ্গবন্ধু সেতুর উদ্দেশ্য কী?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর প্রধান উদ্দেশ্য হলো ঢাকা শহরকে পশ্চিমবঙ্গ এবং অন্যান্য পূর্ব ভারতীয় রাজ্যগুলির সাথে সংযুক্ত করা। এটি দ্বারা পূর্ব ও পশ্চিম বাংলাদেশের সম্পাদিত বাণিজ্যিক, সাংস্কৃতিক এবং রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠানগুলির মধ্যে সম্পাদন হয়ে যাবে।

১৮. বঙ্গবন্ধু সেতু কখন উদ্বোধিত হয়েছে?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতুর উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়েছে ২৭ জুন, ২০২১ সালে। এই দিনে সেতুটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং অন্যান্য উচ্চ মর্যাদার কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে সম্প্রতি সেতুর উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

১৯.বঙ্গবন্ধু সেতু বাংলাদেশের কোন জেলায় অবস্থিত?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতু বাংলাদেশের মুন্সিগঞ্জ জেলায় অবস্থিত। এটি পদ্মা নদীর উপরে স্থাপিত হয়েছে এবং ঢাকা শহর এবং মুন্সিগঞ্জ জেলা মধ্যে সংযুক্ত করে।

আরো পড়ুন: পদ্মা সেতু সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান 

২০.বঙ্গবন্ধু সেতু বাংলাদেশের কতটি সড়ক সংযোগ করে?

  • উত্তর: বঙ্গবন্ধু সেতু বাংলাদেশের মুন্সিগঞ্জ জেলা ও ঢাকা শহরকে সংযুক্ত করে। এটি সেতুটির মাধ্যমে ঢাকা শহর সহজে পশ্চিমবঙ্গের সাথে যোগাযোগ করতে পারবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button