শিক্ষাসাধারণ জ্ঞান

পরিবেশ কাকে বলে? পরিবেশের উপাদান সমূহ কি কি

পরিবেশ কাকে বলে: এই পরিবেশে বায়ু, জল, ভূমি, অক্সিজেন, জীবজন্তু, উষ্ণতা, আবহাওয়া, উষ্ণ প্রদীপ্তি, বন্যপ্রাণী, বন্যপর্যাপ্তি, প্রাকৃতিক প্রস্তুতি সহ বিভিন্ন নৈসর্গিক উপাদান অন্তর্ভুক্ত থাকে। এই প্রাকৃতিক পরিবেশ মানব সমাজের উপর দীর্ঘদিন ধার্য্য প্রভাব ফেলে আসে, যেমন বর্ষণ, প্রাকৃতিক আপত্তি, তাপমাত্রা পরিবর্ধন, জীবজন্তুর বন্ধন ইত্যাদি।

Table of Contents

পরিবেশ কাকে বলে?

পরিবেশ হলো সব জীবজন্তু, প্রাণী, পৌঁছাচার, আবহাওয়া, জল, মৃত্যুদণ্ড, প্রাকৃতিক ও মানবজনিত উপাদানের সমন্বয়ে আবাসিক এবং বাণিজ্যিক একটি নির্ধারিত এলাকা বা স্থানকে বোঝায় যা প্রাকৃতিক প্রকৃতি, সামাজিক পরিস্থিতি, সংস্কৃতি, প্রযুক্তি ইত্যাদির সাথে সম্পর্কিত। 

এটি আমাদের দৈনন্দিন জীবনের সব আবাসিক এবং বাণিজ্যিক কাজের জন্য প্রয়োজনীয়। পরিবেশে ভূমি, জল, বায়ু, জীবন্তু, পাদাপ, মানব সহ সব উপাদান একসাথে কাজ করে এবং একে অপরকে প্রভাবিত করে। 

মানব প্রযুক্তি, শৃংখলা, উদ্যোগ, উদ্ভাবনী কাজগুলি পরিবেশে প্রভাব ফেলে এবং পরিবেশ ও মানবজীবনের সমন্বয় নিয়ে পরিবর্তন আনে।

আরো পড়ুন: ব্যবসায় পরিবেশ কাকে বলে

পরিবেশ কত প্রকার ও কি কি?

পরিবেশকে ২ ভাগে ভাগ করা যায়। ক) প্রাকৃতিক পরিবেশ / ভৌত পরিবেশ: এই পরিবেশটি প্রকৃতির উপাদানে ভিন্ন ভিন্ন অংশের সমন্বয়ে গঠিত থাকে। এটি আকাশ, জল, ভূমি, বায়ু, প্রাণীজগত, উষ্ণতা, আবহাওয়া, বন্যপ্রাণী, বন্যপর্যাপ্তি, প্রাকৃতিক দুর্যোগ ইত্যাদি অংশ পরিবেশে অন্তর্ভুক্ত থাকে।

খ) সামাজিক পরিবেশ / কৃত্রিম পরিবেশ / মানবজনিত পরিবেশ: এই পরিবেশটি মানব দ্বারা তৈরি এবং পরিচালিত হয়। সমাজের সংস্কৃতি, রাজনীতি, অর্থনীতি, শিক্ষা, প্রযুক্তি, কৃষি, নীতি, ধর্ম, পরিবহন, আবহাওয়া ব্যবস্থা, মানবিক সম্পর্ক ইত্যাদি এই পরিবেশে অন্তর্ভুক্ত থাকে।

এই উভয় পরিবেষের মধ্যে সম্প্রদায়, প্রযুক্তি, প্রাকৃতিক বন্যা বা দুর্যোগ ইত্যাদি এলাকার পরিবর্তনে সমন্বয় হতে পারে এবং পরিবেশে প্রভাব ফেলতে পারে।

প্রাকৃতিক পরিবেশ বা ভৌত পরিবেশ

প্রাকৃতিক পরিবেশ বা ভৌত পরিবেশ হলো পৃথিবীর নিজস্ব উপাদান, ঘটনা, প্রক্রিয়া ও প্রাণী জীবনের বিন্যাসের ফলে গঠিত একটি মৌলিক পরিবেশ। এটি প্রাকৃতিক ঘটনাবলী এবং নৈসর্গিক উপাদানের সমন্বয় থেকে গঠিত।

এই পরিবেশে বায়ু, জল, ভূমি, অক্সিজেন, জীবজন্তু, উষ্ণতা, আবহাওয়া, উষ্ণ প্রদীপ্তি, বন্যপ্রাণী, বন্যপর্যাপ্তি, প্রাকৃতিক প্রস্তুতি সহ বিভিন্ন নৈসর্গিক উপাদান অন্তর্ভুক্ত থাকে। এই প্রাকৃতিক পরিবেশ মানব সমাজের উপর দীর্ঘদিন ধার্য্য প্রভাব ফেলে আসে, যেমন বর্ষণ, প্রাকৃতিক আপত্তি, তাপমাত্রা পরিবর্ধন, জীবজন্তুর বন্ধন ইত্যাদি।

মানব বুদ্ধির পরিস্থিতি এবং উত্পাদনার বেশিরভাগ অংশ প্রাকৃতিক পরিবেশের সাথে সম্পর্কিত। বিকাশে আমাদের প্রকৃতিক পরিবেশের রক্ষণ ও সংরক্ষণ গুরুত্বপূর্ণ, কারণ এটি মানব সমাজের অত্যধিক স্বাস্থ্য এবং উন্নতির জন্য অত্যন্ত প্রভাবশালী ভূমিকা পালন করে।

পরিবেশ কাকে বলে পরিবেশের উপাদান সমূহ কি কি
পরিবেশ কাকে বলে পরিবেশের উপাদান সমূহ কি কি

সামাজিক পরিবেশ বা কৃত্রিম পরিবেশ

সামাজিক পরিবেশ বা কৃত্রিম পরিবেশ হলো মানব দ্বারা তৈরি এবং পরিচালিত হয়ে থাকা একটি পরিবেশ। এটি মানব সমাজ এবং সংস্কৃতির সাথে সম্পর্কিত এবং মানব কর্মকাণ্ড এবং জীবনযাপনের জন্য উপযুক্ত অবস্থান।

সামাজিক পরিবেশ অন্তর্নিহিত বিভিন্ন সামাজিক উপাদানের, যেমন সমাজের সংস্কৃতি, রাজনীতি, অর্থনীতি, শিক্ষা, প্রযুক্তি, কৃষি, ধর্ম, পরিবহন, আবহাওয়া ব্যবস্থা, মানবিক সম্পর্ক ইত্যাদি অংশের মধ্যে প্রভাবিত হয়।

সামাজিক পরিবেশ সামাজিক সংক্রিয়া এবং বৈশিষ্ট্যিকতার স্থান হতে পারে, এটি সমাজের সম্প্রদায়, ভাষা, ধর্ম, জাতি, আদর্শ, নীতি, আচরণ ইত্যাদি দ্বারা আকার নেয়।

কৃত্রিম পরিবেশ মানব প্রযুক্তি, প্রতিষ্ঠান, উদ্যোগ, নগরসংস্থা, প্রস্তুতি, প্রযুক্তি ইত্যাদি দ্বারা নির্মিত এবং পরিচালিত হয়ে থাকে। উদাহরণস্বরূপ, শহর, বাসা, বাণিজ্যিক কেন্দ্র, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, প্রযুক্তি কেন্দ্র, পরিবহন নেটওয়ার্ক, উদ্যোগ কেন্দ্র ইত্যাদি কৃত্রিম পরিবেশে অন্তর্ভুক্ত থাকে।

সামাজিক পরিবেশ এবং কৃত্রিম পরিবেশ মানব জীবনের দুটি গুরুত্বপূর্ণ এবং পারস্পরিকভাবে প্রভাব ফেলা সহায়ক একটি সাথে সাথে ব্যবহার করা হয়।

আরো পড়ুন: প্রযুক্তিগত পরিবেশ কি? 

পরিবেশের উপাদান সমূহ

  • পরিবেশ বিভিন্ন উপাদানের সমন্বয় থেকে গঠিত হয়। এই উপাদানগুলি নিম্নলিখিত:
  • বায়ু (Air): বায়ু পৃথিবীর আসল অংশ, এটি জীবনের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।
  • জল (Water): জল পৃথিবীর একটি মৌলিক উপাদান, যা জীবনের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয়।
  • ভূমি (Land): ভূমি পৃথিবীর পৃথিবীর মৌলিক পার্ট, যা বিভিন্ন উপকরণের স্থান হিসেবে ব্যবহার হয়।
  • জীবজন্তু (Living Organisms): পাশ্চাত্য জীবন বৈশিষ্ট্য সম্পন্ন সকল জীবজন্তু, যারা পরিবেশে বাস করে এবং প্রভাব ফেলে।
  • উষ্ণতা (Temperature): তাপমাত্রা পরিবেশে বিভিন্ন জীবন প্রক্রিয়ার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।
  • আবহাওয়া (Climate): পরিবেশের উষ্ণতা, আবহাওয়া এবং বায়ুমণ্ডলের সমন্বয়ে গঠিত একটি গঠন যা জীবনের বিন্যাসে গুরুত্বপূর্ণ।
  • অক্সিজেন (Oxygen) ও কার্বন ডাইঅক্সাইড (Carbon Dioxide): অক্সিজেন জীবনের সাথে জুড়ে আসার প্রধান উপাদান এবং কার্বন ডাইঅক্সাইড জীবিত জীবন প্রক্রিয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ।
  • প্রাকৃতিক প্রস্তুতি (Natural Resources): যেমন বৃক্ষ, খনিজ, বিচু, বিদ্যুত শক্তি, জলবায়ু সংস্থান, আদি।
  • বন্যপ্রাণী (Wildlife): জঙ্গলে বাস করা এবং জীবন যাপন করা সকল জীবজন্তুর সমষ্টি।
  • প্রাকৃতিক দুর্যোগ (Natural Disasters): যেমন ভূমিকম্প, সুনামি, অতিক্রমণীয় জলবায়ু, চুল্লি, আদি।
  • পরিবার (Community): বিভিন্ন প্রাণী, উদ্ভিজ্ঞ প্রাণী, এবং প্রাণিসমূহের সমস্ত প্রতিষ্ঠান যা একসাথে জীবন যাপন করে।
  • এই উপাদানগুলি একসাথে মিলে পরিবেশ গঠিত হয় এবং এই পরিবেশে বিভিন্ন জীবনজীবন্ত প্রক্রিয়া ঘটে যা প্রাকৃতিক পরিবেশ এবং সামাজিক পরিবেশ সম্পর্কিত।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button