ক্যাপশনস্ট্যাটাস

অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে কিছু কথা, পরামর্শ ও চিঠি

অভিভাবক নিয়ে উক্তি: এই পোস্টটির মাধ্যমে অভিভাবক নিয়ে উক্তি? সে বিষয় গুলো নিয়ে হাজির হয়েছি। আপনি যদি এ বিষয়ে জানতে আগ্রহী থাকেন তাহলে অবশ্যই পোস্টটি পড়তে থাকুন। 

Table of Contents

অভিভাবক নিয়ে উক্তি

১। পৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ঠ শিক্ষক ও বাবা, যে ছেলে গোটা ছাত্রজীবন বাবার সাথে বসে রাতের খাবার খাবে, সে কোনোদিন নীতির বিরুদ্ধে বিচ্যুত হবে না।

_ হুমায়ুন আহমেদ।

২। সেই মায়ের সাথে উচ্চস্বরে কথা বলো না যেই মা তোমাকে কথা বলা শিখিয়েছেন।।

_হজরত আলী (রাঃ)

৪। পরিবার হলো প্রকৃতির একটি সেরা শিল্পকর্ম।

_ জর্জ সান্তায়না

৫। একটিমাত্র পুষ্পিত সুগন্ধ বৃক্ষে সমস্ত বন সুবাসিত হয়, তেমনি একটি সুপুত্রের দ্বারা সমস্ত কুল ধন্য।” একটি কুবৃক্ষের কোটরের আগুন থেকে সমস্ত বন ভস্মীভূত হয়, তেমনি একটি কুপুত্রের দ্বারাও বংশ দগ্ধ হয়।

_ চাণক্য চাণক্য

অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে কিছু কথা 

শিশু যদি কোন বেয়াদবি করে তখন তার জন্য তাকে অতিরিক্ত শাসন না করে বরং ধৈর্য ধারণ করুন, এবং একটি ভালো সময়ে বুদ্ধিমত্তার সাথে তার অপরাধ ও বেয়াদবির কাজটুকু বুঝিয়ে দিন। 

অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে চিঠি

কারণ ধর্মীয় অনুশাসন এবং ধার্মিক শিক্ষার ফলে সন্তানের ভিতর ন্যায়পরায়ণতা, সত্যবাদিতা ও সৌহার্দ্যপূর্ণ আচরণ গুলি প্রভাব পড়ে। এজন্যে আপনার সন্তান একজন সুসন্তান এবং সুনাগরিক হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারবে। 

কিন্তু একজন বাবা মা হিসেবে বা অভিভাবক হিসেবে এটি আপনি আগামীতো তার জন্য কখনোই আশা করবেন না, তাই আগে থেকেই সাবধান হওয়া ভালো।

অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে কিছু কথা, বক্তব্য, পরামর্শ ও চিঠি

অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে শিক্ষকের বক্তব্

যখন আমি এক অভিভাবককে তার সন্তানের হোমওয়ার্কের রুটিন সম্পর্কে প্রশ্ন করেছিলাম তখন তিনি আমায় বলেছিলেন এটা শিক্ষকের জানা প্রয়োজন ছিলো, অভিভাবকের নয়।

অভিভাবক তো রোজ বাচ্চাকে স্কুলে পাঠাচ্ছেন!! তাই বাচ্চার হোমওয়ার্কের ব্যাপারে তাদের কোনও মাথাব্যথা নেই। সবটাই স্কুলের দায়িত্ব, এমনটি নয়।

শিক্ষার ক্ষেত্রে অভিভাবকের ভূমিকা

দেশে ভালো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পর্যাপ্ত। অভাব শুধু গুণগত অথবা মানসম্মত শিক্ষার। শিক্ষার গুণগত মান বাড়বে শিক্ষকদের গুণে। শিক্ষার মান উন্নত করতে শিক্ষকের অবদান সর্বাধিক অগ্রগণ্য।

অভিভাবকের নানা ভাবে মনে করিয়ে দেয়ার দায়িত্বও শিক্ষকদের। শিক্ষকের দায়িত্ব পালনের জন্য শিক্ষককে সচেতন হতে হবে। শিক্ষকদের দরদী মন নিয়ে শিক্ষা প্রদান করতে হবে।

অভিভাবকদের করণীয়

সন্তানদের/শিক্ষার্থীদের নিজের ও বাড়ির ছোট ছোট কাজগুলো করানোর বিষয়ে সাহস প্রদান দেওয়া।সন্তানদের/শিক্ষার্থীদের সময় দেওয়া, তাদের গতিবিধি লক্ষ্য করা।

সন্তানদের/শিক্ষার্থীদের ভালো কাজে তাদের কে উৎসাহ দেওয়া এবং ভুল/অপ্রয়োজনীয় কাজকে নিরুৎসাহিত করতে বলা শিক্ষাক্রম বিস্তরণে অভিভাবকদের যে দায়িত্ব তা সঠিকভাবে পালন করা।

সন্তানদের/শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয়ে নিয়মিত উপস্থিতি নিশ্চিত করা। সন্তানদের/শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট/কোচিংয়ে নিরুৎসাহিত করা।

সন্তানদের/শিক্ষার্থীদের মূল্যায়নের বিষয়ে নিরপেক্ষতা বজায় রাখা, সততা এবং নৈতিকতা বজায় রাখা। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আয়োজিত মতবিনিময় সভায় উপস্থিত থাকা।

আজকে এই পোস্টটির মাধ্যমে অভিভাবক নিয়ে উক্তি? সে সম্পর্কে জানতে পারলেন, আপনি যদি এই পোস্টটির মাধ্যমে উপকৃত হয়ে থাকেন তবে সবার সাথে শেয়ার করবেন। ধন্যবাদ সবাইকে খুব মনোযোগ সহকারে পোস্টটি শেষ পযন্ত পড়ার জন্য।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button